ভারত থেকে বাসমতী চাল আনা হবেভারত থেকে বাসমতী চাল আনা হবে

নিউজ ডেস্কঃ
ভারতের বীরভূম থেকে এ চাল আমদানি করা হবে। প্রতি কেজি চালের দাম পড়বে ৩৫ দশমিক ২৭ টাকা। মোট ব্যয় হবে ১৭৬ কোটি ৩৮ লাখ টাকা।
ভারত থেকে ৫০ হাজার টন বাসমতী চাল আমদানি করবে সরকার। সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি গতকাল বুধবার এ–বিষয়ক একটি প্রস্তাব অনুমোদন করেছে।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের অনুপস্থিতিতে ভার্চ্যুয়াল এ সভায় সভাপতিত্ব করেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। সভা শেষে অনুমোদিত ক্রয় প্রস্তাবগুলোর বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব আবু সালেহ মোস্তফা কামাল।

জানানো হয়, ভারতের বীরভূম থেকে এ চাল আমদানি করা হবে। সরবরাহ করবে এমএসপিকে লিমিটেড। প্রতি কেজি চালের দাম পড়বে ৩৫ দশমিক ২৭ টাকা। সে হিসাবে ৫০ হাজার টন চাল আমদানিতে খরচ হবে ২ কোটি ৮ লাখ ডলারের সমপরিমাণ ১৭৬ কোটি ৩৮ লাখ টাকা।

ক্রয় কমিটির বৈঠকে চাল কেনাসহ ৩ হাজার ৮৮৪ কোটি ২৬ লাখ টাকা ব্যয়ে মোট ১২ ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদিত হয়েছে বলে জানান মোস্তফা কামাল।

সাংবাদিকদের আরও জানানো হয়, ২০২০-২১ অর্থবছরে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে চুক্তির মাধ্যমে কাতার থেকে ২৫ হাজার টন ইউরিয়া সার আমদানির প্রত্যাশাগত অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এ জন্য ব্যয় হবে ৫৪ কোটি ৬৯ লাখ টাকা।

এ ছাড়া রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে সৌদি আরব থেকে আনা হবে ৬ লাখ টন ডিএপি সার। এতে ব্যয় ২ হাজার ৯৮ কোটি টাকা।

অনুমোদিত অন্য প্রস্তাবগুলো হচ্ছে ‘আনোয়ারা উপজেলা সংযোগ সড়কসহ কর্ণফুলী টানেল সংযোগ সড়ককে ৪ লেনে উন্নীতকরণ (শিকলবাহা-আনোয়ারা সড়ক’ শীর্ষক প্রকল্পের বিভিন্ন কাজ, বাংলাদেশ পুলিশের জন্য ১৭ তলা ফাউন্ডেশনসহ ১৫ তলার ১ হাজার বর্গফুটের প্রতি তলায় ৮টি ইউনিটবিশিষ্ট আবাসিক টাওয়ার এবং আনুষঙ্গিক কাজ, পাঁচটি লটে ৫ কোটি ৪৫ লাখ পিছ খাবার বড়ি কেনা, পায়রাবন্দর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন রবনাবাদ চ্যানেল (ইনার ও আউটার চ্যানেল) জরুরি রক্ষণাবেক্ষণ ড্রেজিং কাজ ইত্যাদি। এ ছাড়া বিদ্যুৎ খাতের কয়েকটি প্রস্তাব অনুমোদিত হয়েছে।
সুত্রঃপ্রথম  আলো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *