1. mahbub@krishinews24bd.com : krishinews :

রাজশাহীতে আম কিনতে আসলে থাকার ব্যবস্থা করবে প্রশাসন

  • আপডেট টাইম : Monday, May 18, 2020
  • 196 Views
রাজশাহীতে আম কিনতে আসলে থাকার ব্যবস্থা করবে প্রশাসন
রাজশাহীতে আম কিনতে আসলে থাকার ব্যবস্থা করবে প্রশাসন

রাজশাহীতে আম কিনতে আসলে থাকার ব্যবস্থা করবে প্রশাসন
পরিপক্ক না হওয়ার কারণে রাজশাহী জেলা প্রশাসনের ঘোষণা সত্ত্বেও এখনো জমে উঠেনি আমের বাজার। আর ক’দিন পরই রাজশাহীতে জমবে আমের বেচাকেনা। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ব্যবসায়ীরা আসবেন আমের শহরে।

কিন্তু করোনাকালে বন্ধ রাজশাহীর আবাসিক হোটেলগুলো। এ অবস্থায় ব্যবসায়ীরা রাজশাহী এসে ব্যবসায়ীরা থাকবেন কোথায়? সেটিই বড় প্রশ্ন হিসেবে দেখা দিয়েছিল। তবে তার সমাধান করে দিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক। করোনা উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আম, লিচু ও অন্যান্য মৌসুমী ফল বিপণন এবং কৃষিপণ্য বাজারজাতকরণ বিষয়ে আজ শনিবার (১৬ মে) সকালে এক ভিডিও কনফারেন্সে রাজশাহী জেলা প্রশাসনকে এই নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

ভিডিও কনফারেন্সে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাকই সভাপতিত্ব করেন। সঞ্চালনা করেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নাসিরুজ্জামান। এ সভায় কৃষি মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সংস্থাপ্রধান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী, দিনাজপুর ও সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক, দেশের শাকসবজি ও ফলমূল রফতানিকারক সমিতি, সুপারশপ মালিক সমিতির নেতারাও যুক্ত হন।

ভিডিও কনফারেন্সে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসনের এমপি শাহরিয়ার আলম কৃষিমন্ত্রীর কাছে দাবি করেন, আমের মৌসুম শুরু হলে রাজশাহী থেকে আম নিয়ে নির্বিঘ্নে পরিবহন করা যায়। তাকে আশ্বস্থ করা হয় এ বিষয়টি পুরোপুরি নিশ্চিত করা হবে।

রাজশাহীর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে যুক্ত হন রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের এমপি ডা. মুনসুর রহমান। এছাড়াও ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শামসুল হক, আঞ্চলিক ফল গবেষণা কেন্দ্রের মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. আলিম উদ্দিন প্রমুখ। এখান থেকে একজন আম চাষি সরাসরি মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের সঙ্গে কথা বলে নিজেদের সমস্যার কথা জানান। সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তাকে আশ্বস্থ করা হয়।

ভিডিও কনফারেন্স শেষে জলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শামসুল হক বলেন, রাজশাহীর প্রধান সমস্যা ছিলো ব্যবসায়ীরা আম কিনতে এসে কোথায় থাকবেন। সেটির সমাধান হয়েছে। আবাসিক হোটেলগুলো এখন বন্ধ থাকলেও আমের কেনাবেচা শুরু হলে প্রশাসন কয়েকটি নির্ধারিত হোটেল খোলার ব্যবস্থা করবে। আমরাও প্রশাসনকে এ কাজে সহযোগিতা করব।

নিউজ টি শেয়ার করে অন্যদের জানার সুযোগ করে দিন...

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2020 krishinews24bd

Site Customized By NewsTech.Com